ডিসেম্বর ৪, ২০২০ ৭:১৮ পূর্বাহ্ণ

করোনা মহামারির দূর্দিনে আনোয়ারার রোগিদের জন্য বিনামূল্যে গাড়ী সার্ভিস

শেয়ার করুন

মুহাম্মদ আমজাদ হোসেন,আনোয়ারা প্রতিনিধি
মানুষ মানুষের জন্য, আর মানবতার সেবাই পরম ধর্ম।মানবতার মহৎ কাজে সারা বাংলাদেশে কিছু কিছু সমাজসেবী তরুণ সমাজ এগিয়ে এসেছে ।
মহামারি করোনা ভাইরাসের মধ্যেও থেমে নেই মানবপ্রেমীদের মানবিক কাজ।
মানবতার কল্যাণে রোগিদের পরিবহণ সেবা দিয়ে মানবিক কাজ করে যাচ্ছেন আনোয়ারার কতিপয় মানবপ্রেমিক। এদের মধ্যে রয়েছে
ছাত্র,রাজনীতিবিদ,মাওলানা,সমাজসেবকসহ আরো অনেকে।
মহামারি করোনা ভাইরাসের কারনে যেসকল রোগি চিকিৎসার জন্য শহরে যাতায়ত সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে তাদের অনবরত পরিবহণ সেবা দিয়ে যাচ্ছেন তারা।ফোন করলেই সাথে সাথে হাজির হয়ে বিনিময় ছাড়া নিয়ে যাচ্ছেন হাসপাতালে আবার রোগিকে স্বযত্নে বাড়ি পৌছে দিচ্ছেন।
মানবতার এই কাজে আনোয়ারায় কাজ করে যাচ্ছেন রাজনীতিবিদ এমএ রশিদ,সমাজসেবক চৌধুরী আনোয়ারুল আজিম,ছাত্রনেতা ইকবাল হায়দার চৌধুরী, মাওলানা এনামুল হক এনাম,মোঃ সাজ্জাদ  হোসেনসহ আরো কয়েকজন মানবপ্রেমিক।
এমএ  রশিদ তার নিজস্ব “নোহা” ও ইকবাল হায়দার প্রাইভেট “মাইক্রো” গাড়ির সেবা আর অন্যান্যরা নিজস্ব মোটর বাইক করে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।অসুস্হ রোগি ছাড়া রক্ত দাতাদেরও পরিবহণ সেবা দিয়ে যাচ্ছেন তারা।
এমএ রশিদ তার স্বেচ্ছাসেবামূলক কাজ সম্পর্কে জানতে চাইলে বলেন, করোনা মাহামারিতে পরিবহণ সংকটে অনেক রোগির কষ্ট দেখে আমি স্বেচ্ছায় পরিবহণ সেবার কাজ শুরু করেছি।আনোয়ারার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ফোন আসলে আমি সাথে সাথে আমার প্রাইভেট “নোহা” গাড়ি নিয়ে তাদের পরিবহণ সেবা দিয়ে যাচ্ছি।এই পর্যন্ত আমি ৭০টির বেশি রোগিকে পরিবহণ সেবা দিয়েছি।মহামারিতে আমার বিনামূল্যে পরিবহণ সেবার কাজ অব্যাহত থাকবে।
পরিবহণ সেবাপ্রাপ্তী বটতলী স্কুলের শিক্ষক জয়নাল আবেদীন বলেন, আমাকে সাপ্তাহে ১বার কিডনি ডাইলোসিস করার জন্য শহরে যেতে হয়। মাসে ১ব্যাগ রক্তের প্রয়োজন পড়ে।আমি শহরে যেতে গাড়ি সমস্যায় পড়লে এমএ রশিদ ও ইকবাল হায়দারকে ফোন করলে তারা কয়েকবার আমাকে বিনামূল্যে পরিবহণ সেবা দিয়ে আমাকে সাহায্য করেছে।
এছাড়া আনোয়ারার বিভিন্ন ব্লাড গ্রুপ আমাকে ব্লাড ম্যানেজ করে সহযোগিতা করেছে। যারা আমাদেরমত  রোগিদের বিভিন্ন সেবা দিয়ে যাচ্ছেন তাদের প্রতি আমাদের দোয়া ও ভালোবাসা রইল।
আনোয়ারার প্রতিনিয়ত এই মানবিক কাজ করে উপজেলার অসুস্হ রোগিদের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন তারা।এমন মহৎ কাজ প্রশংসার দাবিদার।মানবতার কল্যাণে কাজটি দেখে আনোয়ারার সবার মুখে প্রশংসায় পঞ্চমুখ তারা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *