অক্টোবর ২৭, ২০২০ ১:০৯ পূর্বাহ্ণ

পটিয়ায় প্রবাসীকে ক্রসফায়ারে হত্যা : বিচার চেয়ে দোয়া মাহফিল

শেয়ার করুন

চকরিয়া থানা পুলিশের ক্রসফায়ারে নিহত পটিয়ার প্রবাসী মোঃ জাফর হত্যার বিচার চেয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে শনিবার এক দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। পটিয়াস্থ কচুয়াই নিজ বাড়ী থেকে জাফরকে চকরিয়া থানার পুলিশ তুলে নিয়ে ৫০ লাখ টাকা দাবি করে। দাবিকৃত টাকা না পেয়ে পুলিশ গত ৩১ জুলাই ক্রস ফায়ারে হত্যা করে।

নিরাপরাধ জাফরকে অন্যায়ভাবে হত্যার দায়ে জাফরের মামা আহম্মদ নবী বাদী হয়ে গত ১৬ আগষ্ট পটিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে চকরিয়া থানার ওসি হাবিবুর রহমান ও হারবাং পুলিশ ফাড়িঁর ইনচার্জ আমিনুল ইসলামসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে। বর্তমানে মামলাটি সিআইডি চট্টগ্রাম জোনয়ের অধীনে তদন্ত চলছে। জাফর হত্যার জন্য দায়ী পুলিশের বিচার চেয়ে শনিবার সকালে জাফরের বাড়িতে এক দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। মাহফিলে দরুদে নাড়িয়া শরীফ ও খতমে নুহ শরীফ পাঠ করা হয়। আল-আমিন বাড়িয়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মিসকাতুল ইসলাম মোজাহেরী মাহফিলে মোনাজাত পরিচালনা করেন।

এসময় মাওলানাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নাসির উদ্দীন, আহম্মদ হোসেন জিহাদী, জামাল আহাম্মদ, মুজিবুর রহমান আল-কাদেরী, জাকেরুল−াহ আজিজী, জসিম উদ্দীন, আবদুল মন্নান, এয়াছিন আরাফাত, এহসান উদ্দীন, ইমরানুল হক, আকতার হোসেন, রিয়াজ প্রমুখ। ঘটনার ৫০ দিন পার হলেও নিহত জাফরের মায়ের কান্না থামেনি।

তিনি  আজ শনিবার মাহফিলে ছেলের জন্য আহাজারিতে ভেঙ্গে পরেন। কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, আমার নিদোষী ছেলেকে পুলিশ তুলে নিয়ে হত্যা করেছে। আমি হত্যাকারীদের দৃষ্টান্ত মূলক বিচার দাবী করছি। তার বাবা আবদুল আজিজ জানান, মামলা দায়েরের ১ মাস  গত হলেও সিআইডির সংশিষ্ট অফিসার মামলার দৃশ্যমান কোনো অগ্রগতি দেখাতে পারেনি।

চকরিয়া থানার ওসি হাবিবুর রহমান ও হারবাং ফাড়িঁ ইনচার্জ খোশমেজাজে রয়েছে। পুলিশের কারণে তাদের পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বলে অভিযোগ করেন।


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *